বঙ্গরঙ্গমঞ্চ ও থিয়েটারের ধারা প্রশ্ন উত্তর পর্ব দ্বিতীয় । Bengali Semester 5th Question and Answer part 2

প্রশ্ন : ‘নীলদর্পণ' এর পর এই নাট্যশালায় কোন নাটক অভিনীত হয়?
উত্তর : ‘নীলদর্পণ’ এর পর অভিনীত হয় 'জামাই বারিক'।

প্রশ্ন : মধুসূদন দত্তের 'কৃষ্ণকুমারী' নাটক কবে অভিনীত হয়? উত্তর : ‘কৃষ্ণকুমারী’ অভিনীত হয় ১৮৭৩ খ্রীস্টাব্দের ২১ ফেব্রুয়ারি।

প্রশ্ন : ‘কৃষ্ণকুমারী’ নাটকে ভীমসিংহের ভূমিকায় কে অভিনয় করেন?
উত্তর : ভীমসিংহের ভূমিকায় অভিনয় করেন গিরিশচন্দ্র ঘোষ।

প্রশ্ন : 'ন্যাশানাল থিয়েটারের' প্রথম পর্বের শেষ অভিনয় কবে হয়?
উত্তর : প্রথম পর্বের শেষ অভিনয় হয় ১৮৭৩ খ্রীঃ ৮ মার্চ।

প্রশ্ন : প্রথম পর্বের শেষ রজনীতে কোন্ কোন্ নাটক অভিনীত হয়?
উত্তর : প্রথম পর্বের শেষ রজনীতে অভিনীত হয় মাইকেল মধুসুদনের ‘বুড়ো শালিকের ঘাড়ে রোঁ' এবং রামনারায়ণের ‘যেমন কর্ম তেমন ফল'।


প্রশ্ন : 'ন্যাশানাল থিয়েটারের' দ্বিতীয় পর্বের তাৎপর্য কী?
উত্তর : 'ন্যাশানাল থিয়েটারের' দ্বিতীয় পর্বের সুচনাতেই মত পার্থক্যের জেরে দুটো দলে ভেঙে যায়। গিরিশচন্দ্রের দলের নাম হয় 'ন্যাশানাল থিয়েটার আর অর্ধেন্দুশেখরের দলের নাম হয় 'হিন্দু ন্যাশনাল থিয়েটার'।

প্রশ্ন : গিরিশচন্দ্রের ন্যাশ্যানাল থিয়েটারের উদ্বোধন হয় কবে?

উত্তর : গিরিশচন্দ্রের ন্যাশানাল থিয়েটারের উদ্বোধন হয় ১৮৭৩ খ্রাস্টাব্দের ৫ এপ্রিল কলকাতার টাউন হলে।

প্রশ্ন : দ্বিতীয় পর্বের প্রথম রজনীতে অভিনীত হয় কোন্ নাটক?

উত্তর : প্রথম রজনীতে অভিনীত হয় 'সধবার একাদশী' এবং ‘ভারতমাতা’।

প্রশ্ন গিরিশচন্দ্রের ন্যাশানাল থিয়েটারে শেষ অভিনয় কবে হয়? কোন্ নাটকের মধ্য দিয়ে?

উত্তর : শেষ অভিনয় হয় ১৮৭৪ খ্রীঃ ১৮ ফেব্রুয়ারি দীনবন্ধু মিত্রের 'লীলাবতী নাটকের মধ্য দিয়ে।

প্রশ্ন : 'হিন্দু ন্যাশনাল থিয়েটারে' প্রথম অভিনয় কবে হয়?

উত্তর : ‘হিন্দু ন্যাশনাল থিয়েটারে' প্রথম অভিনয় হয় ১৮৭৩ খ্রীঃ ৫ এপ্রিল। মঞ্চস্থ নাটক ‘শর্মিষ্ঠা’।

প্রশ্ন : 'ন্যাশানাল থিয়েটারের গুরুত্ব লেখ।
উত্তর ঃ (ক) এই থিয়েটারে প্রথম সাধারণ মানুষের প্রবেশ অবাধ হয়।
(খ) পেশাদারি থিয়েটারের বীজ উপ্ত হয়েছিল এর মধ্য দিয়ে।
(গ) বলিষ্ঠ নাট্যকার ও নাট্য অভিনেতার আবির্ভাব ঘটে ন্যাশনাল থিয়েটারের মধ দিয়ে।

প্রশ্ন : ‘বেঙ্গল থিয়েটার' কত সালে কার উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয়? উত্তর : ‘বেঙ্গল থিয়েটার' ১৮৭৩ সালে শরৎচন্দ্র ঘোষের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রশ্ন : এই নাট্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য কত টাকা সংগ্রহ করা হয়?

উত্তর : ১৮ হাজার টাকা সংগ্রহ করা হয়।

প্রশ্ন : ‘বেঙ্গল থিয়েটারের' উদ্বোধন হয় কবে, কোন্ নাটকের অভিনয় দ্বারা?

উত্তর ঃ ‘বেঙ্গল থিয়েটারের' উদ্বোধন হয় ১৮৭৩ খ্রীঃ আগস্ট মাসে মধুসূদনের ‘শর্মিষ্ঠা’ নাটকের অভিনয় দ্বারা।

প্রশ্ন ঃ ‘বেঙ্গল থিয়েটারে’ শেষ অভিনয় হয় কবে? এই থিয়েটারে অভিনীত শেষ নাটক কী?

উত্তর : ‘বেঙ্গল থিয়েটারে’ শেষ অভিনয় হয় ১৯০১ খ্রীঃ ১৭ মার্চ। শেষ অভিনীত নাটক ‘প্রমোদ রঞ্জন’ ও ‘দাওয়াই'।

প্রশ্ন : শরৎচন্দ্র ঘোষের পর ‘বেঙ্গল থিয়েটারের অধ্যক্ষ হন কে?

 উত্তর : শরৎচন্দ্র ঘোষের পর ‘বেঙ্গল থিয়েটারের অধ্যক্ষ হন বিহারীলাল চট্টোপাধ্যায় (১৮৮০) ।

প্রশ্ন ‘বেঙ্গল থিয়েটার' কবে থেকে ‘রয়াল বেঙ্গল থিয়েটার' নামে পরিচিত হয়?

উত্তর : ১৮৯০ সালের জানুয়ারির পর থেকে ‘রয়াল বেঙ্গল থিয়েটার' নামে পরিচিত হয়।

প্রশ্ন : কার মৃত্যুর পর ‘বেঙ্গল থিয়েটার' বন্ধ হয়ে যায়?

উত্তর : বিহারীলাল চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুর পর বন্ধ হয়।


প্রশ্ন : বঙ্কিমচন্দ্রের কোন উপন্যাসের নাট্যরূপ এখানে অভিনীত হয়?
উত্তর ঃ বঙ্কিমচন্দ্রের ‘দুর্গেশনন্দিনী' উপন্যাসের নাট্যরূপ।

প্রশ্ন : বাংলা রঙ্গমঞ্চের ইতিহাসে ‘বেঙ্গল থিয়েটারের গুরুত্বগুলি লেখ।
উত্তর : (ক) রঙ্গমঞ্চ পরিচালনার ক্ষেত্রে পেশাদারী দৃষ্টিভঙ্গির সার্থক প্রকাশ ঘটেছে। (খ) নবীন বসুর পর সাধারণ থিয়েটারে নারী চরিত্রের অভিনয়ে অভিনেত্রীর প্রয়োগ যথার্থ তাৎপর্যপূর্ণ।

Related Post

প্রশ্ন : কাদের উদ্যোগে গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের প্রতিষ্ঠা ? উত্তর ঃ ভুবনমোহন নিয়োগীর পৃষ্ঠপোষকতায় এবং নগেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় ধর্মদাস সুর, অমৃতলাল বসু প্রমুখের উদ্যোগে গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের প্রতিষ্ঠা।

প্রশ্ন : গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের উদ্বোধন হয় কবে, কোন্ নাটকের দ্বারা?

উত্তরঃ গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের উদ্বোধন হয় ১৮৭৩ খ্রীস্টাব্দের ৩১ ডিসেম্বর ‘‘কাম্যকানন' নাটকের দ্বারা।

প্রশ্ন : গ্রেট ন্যাশনাল থিয়েটারের দ্বিতীয় রজনীতে কোন্ নাটক অভিনীত হয়।
উত্তর : দ্বিতীয় রজনী অর্থাৎ ১৮৭৪ খ্রীঃ ১ জানুয়ারী অভিনীত হয় দীনবন্ধু মিত্রের ‘নীলদর্পণ'।

প্রশ্ন : গিরিশচন্দ্র ঘোষ কবে এই থিয়েটারে যোগ দেন?

উত্তর : গিরিশচন্দ্র ঘোষ ১৮৭৪ খ্রীঃ ২১ ফেব্রুয়ারি এই থিয়েটারে যোগ দেন।

প্রশ্ন : কৃষ্ণধন বন্দ্যোপাধ্যায়কে কবে এই থিয়েটার লিজ দেওয়া হয় ?
উত্তর : কৃষ্ণধন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ১৮৭৫ খ্রীঃ আগস্ট মাসে লিজ দেওয়া হয়।

প্রশ্ন : গ্রেট নাশানাল থিয়েটারের দুটি গুরুত্ব লেখ।
উত্তর : (ক) দর্শক মনোরঞ্জনের কথা ভেবে একদিকে যেমন প্রহসনধর্মী নাটক পরিবেশিত হয়েছে তেমনি আবার সিরিয়াস নাটকেরও অভিনয় হয়। (খ) এই থিয়েটারের অভিনয়ে জাতীয়তাবাদী চিন্তার প্রকাশ বিশেষ ভাবে লক্ষিত

প্রশ্ন : গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের শেষ অভিনয় কবে হয়?
উত্তর : শেষ অভিনয় হয় ১৮৭৭ খ্রীস্টাব্দের ৬ অক্টোবর।

প্রশ্ন : গিরিশচন্দ্র কবে গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের ইজারা নেন?
উত্তর : গিরিশচন্দ্র ১৮৭৭ খ্রীস্টাব্দের অক্টোবরে ইজারা নেন এবং নাম পরিবর্তন করে রাখেন ন্যাশানাল থিয়েটার।

প্রশ্ন : 'দি ইন্ডিয়ান ন্যাশানাল থিয়েটার' এর সূচনা কীভাবে হয়?

উত্তর : কৃষ্ণধন বন্দ্যোপাধ্যায় ১৮৭৫ খ্রীঃ 'গ্রেট ন্যাশানাল থিয়েটারের লিজ নেওয়ার পর এর নাম পরিবর্তন করে রাখেন ‘দি ইন্ডিয়ান ন্যাশানাল থিয়েটার'।

প্রশ্ন : এই থিয়েটারে প্রথম অভিনয় কবে হয়?

উত্তর : এই থিয়েটারে প্রথম অভিনয় হয় ১৮৭৫ খ্রীস্টাব্দে ১৪ আগস্ট।

প্রশ্ন : এই থিয়েটারে প্রথম অভিনীত নাটক কোন্‌টি?
উত্তর : এই থিয়েটারে প্রথম অভিনীত নাটক ‘'শরৎ-সরোজিনী'।

প্রশ্নঃ 'শরৎ-সরোজিনী' নাটকে মহেন্দ্রলাল বসু অভিনীত চরিত্র কোন্‌টি?
উত্তর : মহেন্দ্রলাল বসু অভিনীত চরিত্র ‘শরৎ’।

প্রশ্ন : এই রঙ্গমঞ্চে কোন অভিনেত্রী রচিত নাটক অভিনীত হয়? উত্তর : অভিনেত্রী সুকুমারী দত্ত রচিত নাটক ‘অপূর্বসতী' এই রঙ্গমঞ্চে অভিনীত হয় ।

প্রশ্ন : এই রঙ্গমঞ্চে শেষ অভিনয় কবে হয়? শেষ অভিনীত নাটক কোনটি?
উত্তর : শেষ অভিনয় হয় ১৮৭৫ খ্রীস্টাব্দের ২৫ সেপ্টেম্বর, শেষ অভিনীত নাটক ‘কনকপদ্ম'।

প্রশ্ন: নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন কবে বিধিবদ্ধ হয়?

উত্তর : নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন বা Dramatic Performance Control Act বিধিবদ্ধ হয় ১৮৭৬ সালের ১১ ডিসেম্বর।

প্রশ্ন : নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন কবে জারি হয়?

উত্তর : নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন জারি হয় ১৮৭৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর।

প্রশ্ন : নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন জারির কারণ কী ছিল?

উত্তর : অষ্টাদশ শতকের সাতের দশকের গোড়ার দিকে যে জাতীয়তাবাদী স্বদেশপ্রেমমূলক, ইংরেজদের প্রতি ঘৃণাবোধক নাটক অভিনীত হতে শুরু করেছিল সেই নাটকগুলির কণ্ঠেরোধের উদ্দেশ্যেই নাট্যনিয়ন্ত্রণ আইন জারি হয়।

প্রশ্ন : কোন্ নাটক প্রকাশের পর অভিনয় নিয়ন্ত্রণ আইন বলবতের প্রচেষ্টা শুরু হয় ?

উত্তর : ১৮৭৫ খ্রীস্টাব্দের দক্ষিণারঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ের ‘চা-কর দর্পণ' প্রকাশিত হবার পর হবহাউস এই আইন বলবতের প্রচেষ্টা শুরু করেন।

প্রশ্ন কোন্ কোন্ ক্ষেত্রে নাটকের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়?

উত্তর : যে সমস্ত ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি হয় সেগুলি হল (ক) নাটক যদি কুৎসা প্রচারমূলক হয়। (খ) ব্রিটিশ সরকারের প্রতি বিদ্বেষ ভাবাপন্ন হলে।

প্রশ্ন: নাট্য নিয়ন্ত্রণ আইন প্রচলিত হবার পর নিষিদ্ধ দু-একটি নাটকের নাম লেখ।
উত্তর : গিরিশচন্দ্রের ‘ছত্রপতি শিবাজী’, ক্ষীরোদপ্রসাদের ‘পলাশীর প্রায়শ্চিত্ত ‘নন্দকুমার’, মন্নথ রায়ের 'কারাগার', মনোমোহন বসুর ‘হরিশ্চন্দ্র' নাটক প্রভৃতি।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Thanks For Contact 😊😊

নবীনতর পূর্বতন